রবিবার-২১শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ-৮ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ-১২ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

চালের দাম বৃদ্ধিতে মিল মালিকরাই জড়িত;চাক্তাই বাজার চালের আড়তে জেলা প্রশাসনের অভিযান

চালের দাম বৃদ্ধিতে মিল মালিকরাই জড়িত;চাক্তাই বাজার চালের আড়তে জেলা প্রশাসনের অভিযান

কমল চক্রবর্তী চট্টগ্রাম ঃ

চালের দামের লাগাম টানতে জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানে উঠে আসে উত্তরবঙ্গ,রাজশাহী, নারায়ণগঞ্জ ও আশুগঞ্জের মিল মালিকদের কারসাজির চিত্র । তবে বর্তমানে চট্টগ্রামে চালের বাজার কিছুটা স্থিতিশীল থাকলেও বাজার অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করলে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে সতর্ক করেন জেলা প্রশাসন।আজ রবিবার ২১ জুন সকাল ১১ টা থেকে দুপুর ২ টা পর্যন্ত জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ উমর ফারুকের নেতৃত্বে এক অভিযান পরিচালনা করা হয়।আজকের অভিযানে মূল্য তালিকা না থাকার কারণে মেসার্স আফসর এন্ড ব্রাদার্স ও মাসুদ এন্ড ব্রাদার্স এর মালিক দুই আড়তদারকে ৫,০০০ টাকা করে ১০,০০০ টাকা অর্থদণ্ড করা। অভিযানে আড়তদারদের ক্রয় রশিদ ও বিক্রয় রশিদ যাচাই করা হয় সাথে কয়েক মাসের কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করা হয় আসলে তারা দাম বৃদ্ধি করছে কি না তা দেখার জন্য।নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উমর ফারুক বলেন, দেশের এ ক্লান্তিলগ্নে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী আছে যারা সুযোগ খুজে কিভাবে কম সময়ে অতিরিক্ত মুনাফা করবে। কিছু অভিযোগের ভিত্তিতে চাক্তাই বাজারে অভিযান পরিচালনা করা হয়। যদিও অভিযোগের তীর উত্তরবঙ্গ,রাজশাহী, নারায়ণগঞ্জ ও আশুগঞ্জ এর মিল মালিকদের দিকে। আড়তদাররা জানায় বর্তমানে চালের দামে ভারসাম্য আছে। যদিও দাম কিছুটা বৃদ্ধি পেয়েছে তা মিল মালিকদের কারণে। এক বাক্যে সবাই মিল মালিকদের কারসাজির কথা উল্লেখ করেন। ব্যাবসায়ীরা বলেন তারা দাম বাড়ালে আমাদেরও বেশি দামে চাল কিনতে হয়।ফলে বাজারে তার প্রভাব পড়ে।তিনি আরো বলেন, মিল মালিকদের কারসাজির জন্যে পাইকারি বাজার ও খুচরা বাজারে দাম বৃদ্ধি পাচ্ছে। ফলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যাবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।চট্টগ্রামের চালের বাজার স্থিতিশীল থাকলেও বাজার অস্থিতিশীল করতে কেউ দাম বৃদ্ধির পায়তারা করে সাধারণ মানুষের কষ্ট বাড়ালে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।কয়েকটি দোকানে প্রবেশ করে ওএমএস এর চাল মজুদ আছে কিনা দেখা হয় যদিও তা পাওয়া যায়নি ।চালের আড়তদারদের চালের দাম না বাড়াতে অনুরোধ করা হয় অন্যথায় যারা অনিয়ম করবে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান জেলা প্রশাসনের এই কর্মকর্তা।জনস্বার্থে জেলা প্রশাসনের এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উমর ফারুক।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email
Share on telegram
Telegram
Share on skype
Skype