শুক্রবার-১২ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ-২৮শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ-৬ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

বৌদ্ধদের আজ প্রবারণা উৎসব উড়বে নানা রংঙের ফানুস

ডেক্স রিপোর্ট

সকল প্রকার অকুশল বা পাপকর্ম বর্জন বা বারণ করে কুশল কর্ম বা পূণ্যকর্ম সম্পাদন বা বরণ করার শিক্ষা দেয় প্রবারণা।

আষাঢ়ী পুর্ণিমা থেকে আশ্বিনী পুর্ণিমা পর্যন্ত তিন মাস বর্ষাব্রত পালনের শেষ দিন এটি। তিন মাস কঠিন  সাধনায় মগ্ন থাকেন বৌদ্ধ ভিক্ষুরা ।

প্রবারণা মানে ভুল-ত্রুটির নির্দেশ, আশার তৃপ্তি, অভিলাষ পূরণ ও ধ্যান শিক্ষা সমাপ্তি। সকল প্রকার ভেদাভেদ গ্লানি ভুলে গিয়ে কলুষমুক্ত হওয়ার জন্য ভিক্ষুসংঘ পবিত্র সীমা ঘরে সম্মিলিত হয়ে একে অপরের নিকট দোষ স্বীকার করেন। নিজের দোষ স্বীকারের মধ্যে মহত্ত্বতা আছে তা বৌদ্ধ ভিক্ষুরা দেখাতে সমর্থ হন

প্রবারণা পুর্ণিমার পরদিন থেকে শুরু হয় মাসব্যাপী কঠিন চীবর দান। এ তিন মাস বৌদ্ধ ভিক্ষুরা নিরলসভাবে শীল, সমাধি ও প্রজ্ঞার অনুশীলন করেন। বর্ষাব্রত বা বর্ষাবাস পালনের সময় (তিন মাস) প্রত্যেক বৌদ্ধ ভিক্ষুকে এক জায়গায় বা বিহারে অবস্থান করতে হয়।

এ উপলক্ষে আজ ১ অক্টোবর ২০২০ চট্টগ্রামের নন্দনকানন বৌদ্ধ মন্দির , কাতালগঞ্জ নবপন্ডিত বিহার , চট্টগ্রাম সার্বজনীন বৌদ্ধ বিহার সহ সকল বৌদ্ধ মন্দিরে বুদ্ধ পুজা ,  সামাজিক দুরুত্ব বজায় রেখে  সমবেত  প্রার্থনা ও করোনাভাইরাস রক্ষা পাওয়ার জন্য দেশ সহ বিশ্ব শান্তি কামনায় বিশেষ প্রার্থনা করা হবে । সন্ধ্যায় ফানুস বাতি উড়ানো হবে ।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email
Share on telegram
Telegram
Share on skype
Skype